কুলঞ্জন এর ঔষদি গুণাগুণ - Medicinal properties of Malacca Ginger
Malacca Ginger

কুলঞ্জন এর ভেষজ উপকারিতা

কুলঞ্জন বা দেওতারা হচ্ছে জিংগিবারেসি পরিবারের উদ্ভিদ। দেওতারা ফুলের গাছ প্রায় ৪ মিটার পর্যন্ত উঁচু হয়। পাতা সবৃন্তক, বৃন্ত ৩-৫ সেন্টিমিটার লম্বা। পুষ্পবিন্যাস রেসিম, খাড়া, ২০ থেকে ৩০ সেন্টিমিটার লম্বা নৌকাকৃতির দুটি বড় মঞ্জরি পুষ্পবিন্যাসকে আবৃত করে রাখে। বৃতি সাদা, ঘণ্টাকৃতির। ফুলের পাপড়ি তিনটি, সাদা রঙের। ফুল ফোটে মে থেকে অক্টোবরে। ফুল সুগন্ধিময় এবং অনেক দিন ধরে ফুটে থাকে।

বৈজ্ঞানিক নাম: Alpinia malaccensis

ইংরেজি নাম: Malacca Ginger

বিস্তার

বাংলাদেশের সিলেট, চট্টগ্রাম এবং পার্বত্য চট্টগ্রামের গভীর বনে দেওতারা জন্মায়। রাইজোম এবং বীজ থেকে সহজেই বংশবিস্তার করে। আবাসস্থল ধ্বংসের কারণে প্রজাতিটি বনের পরিবেশ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে। তাই সংরক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া খুব জরুরি হয়ে পড়েছে। বাংলাদেশ বাদে এটি পাশের দেশ ভারত, ইন্দোনেশিয়া,মালয়েশিয়া ও শ্রীলঙ্কায় দেখা যায়।

কুলঞ্জন এর ঔষদি গুণাগুণ

বাত ব্যাথা নিরাময়ে :

অনেক দিন ধরে বাত ব্যথায় ভুগে থাকলে কুলঞ্জন গাছের মূল বেটে নিতে হবে। এরপর মূল বাটার প্রলেপ দিলে বাত ব্যাথা অনেক কমে যাবে।

আমাশয় নিরাময়ে :

অনেক দিন ধরে আমাশয় হলে কুলঞ্জন এর মূল সিদ্ধ করে নিতে হবে। এবার সকাল বিকাল সেবন করলে আমাশয় ভালো হয়ে যাবে।

যক্ষ্মা নিরাময়ে :

যক্ষ্মা রোগের নাম শুনলে অনেকে ভয় পেয়ে যায়। তবে কুলঞ্জন গাছের পাতায় এর উপকার পাওয়া যায়। এর মূল সিদ্ধ করে সেই পানি সেবন করলে যক্ষ্মা রোগে ভালো উপকার পাওয়া যায়।

অ্যাজমা বা হাঁপানি সমস্যায় :

অ্যাজমা বা হাঁপানি রোগ হলে এর সমস্যা সমাধানে মানুষ অনেক কিছু করে থাকে। কুলঞ্জন গাছের মূল চূর্ণ্ করে পানির সাথে মিশিয়ে রাখতে হবে। এরপর সকাল বিকাল নিয়মিত খেলে ভালো উপকার পাওয়া যাবে।