অনন্তমূল লতার ঔষধি গুণাগুণ

পরিচিতিঃ

বাংলা নাম, অনন্তমূল। ইংরেজি নাম, Indian sarsaparilla,বৈজ্ঞানিক নাম: Hemidesmus indicus

রাসায়নিক উপাদানঃ

মূলের প্রধান উপাদান কুমারিন ও উদ্বায়ী তেল। তাছাড়াও এতে স্টেরল, টার্পিন, অ্যালকোহল, লুপিয়ল, স্যাপোনিন ও ট্যানিন বিদ্যমান।

ব্যবহার অংশঃ

পাতা সহ গাছের সমস্ত অংশ।

বিবরণঃ

অনন্তমূল সরু এবং লতা জাতীয় উদ্ভিদ। এদের পাতা যুক্ত এবং কাণ্ডের দুদিকে জন্মায়। ফলের বাইরের দিক সবুজ বর্ণের আর ভেতরে অংশ বেগুনি। এদের বীজ দেখতে ছোটো আকারের ও চ্যাপ্টা। বীজের রং কালো হয়। অনন্তমূলে বর্ষাযকালে ফুল ফোটে। আশ্বিন থেকে পৌষ মাসে ফল পাকে। সেসময়েই চাষাবাদ করা যায়।

অনন্তমূল লতার ঔষধি গুণাগুণ 

১.অরুচিঃ

অনন্তমূল গাছের পাতা সহ গাছের রস ১০-১৫ মিলি বের করে অল্প পানি দিয়ে খেতে হবে তাহলে রুচি ফিরে আসবে।

২.হাত-পা জ্বালাঃ

গাছের সমস্ত অংশ ৩-৫ গ্রাম পিষে রস করে পানি সহ অল্প চিনি মিশিয়ে প্রত্যক দিন ২ বার খেতে হবে। তাহলেই উপকার পাওয়া যাবে।

৩.হাপানি রোগেঃ

প্রতিদিন শুকিয়ে গুড়ো করে ২ গ্রাম করে প্রতিদিন খেলে হাপানি রোগে উপকার পাওয়া যাবে।

৪.খোস পাঁচড়াঃ

অনন্তমূল গাছের মূল ১-৩ গ্রাম পিষিয়ে প্রত্যক দিন কুসুম গরম পানি মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে প্রলেপ দিতে হবে ২ বার। 

৫.ডায়রিয়া প্রতিরোধঃ

গাছের মূল ডায়রিয়ার প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহার করা যায় ।

৬.অ্যালার্জি দূর করাঃ

 ১-৩ গ্রাম মূল দিনে দুবার খাবারের পর খেলে কুষ্ঠরোগ, শ্বেতি, চুলকানিসহ সব ধরনের চর্মরোগ থেকে উপকার পাওয়া যায়।

৭.বিভিন্ন রোগেঃ

ব্রণ, একজিমা, , শোথে, কোষ্ঠকাঠিন্য ইত্যাদিতে বেশ উপকারী।

৮.শ্বাস কষ্টঃ

শ্বাসনালীর প্রদাহ কমায় এবং রক্ত পরিষ্কারক হিসেবে কাজ করে থাকে। অনন্তমূল গাছের পাতার রস খেলে শ্বাস এর জন্য উপকারী।


পরবর্তী খবর পড়ুন : হলুদ খাওয়ার উপকারিতা ও শত গুণ