এই নির্বাচনে নয়, পরবর্তী নির্বাচনের আগে সংলাপ

একাদশ নির্বাচনের আগে বিএনপির সঙ্গে সংলাপ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এই নির্বাচন (একাদশ) নয়, পরবর্তী নির্বাচনের আগে সংলাপ হবে। রোববার (১৯ আগস্ট) সকালে রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী। নির্বাচনকালীন সরকারের হাতে কোনো ক্ষমতা থাকবে না। নির্বাচনকালীন সরকার রুটিন মাফিক দায়িত্ব পালন করবে, সরকারের মন্ত্রিপরিষদ, পুলিশ প্রশাসন সব কিছুই থাকবে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অধীনে।
তিনি বলেন, বিএনপি সংবিধান মানে নাম, আইন মানে না, আদালত মানে না, বিচার মানে না, কিছুই না। বিএনপি জানে আগামী নির্বাচনে তারা হেরে যাবে। তাই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর অজুহাত খুঁজছে। তবে ২০১৪ সালের মতো যদি তারা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায়। তাহলে জনগণ তা প্রতিহত করবে।
মওদুদ আহমেদকে গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে এমন দাবিকে অস্বীকার করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এ ধরনের কথা মওদুদ আহমেদের নাটক। তিনি ইস্যু তৈরি করার জন্য এসব করছেন।
অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এখন সড়কের অবস্থা ভালো উল্লেখ করে তিনি বলেন, পশুবাহী গাড়ির কারণে রাস্তায় যান চলাচলে কিছুটা ধীরগতি রয়েছে। ফেরি পারাপারে পশুবাহী গাড়িকে প্রায়োরিটি দেওয়া হচ্ছে। এসব কারণে একটু সময় লাগছে।
সেতুমন্ত্রী বলেন, আজ ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কে খবর নিয়েছি, এখন পর্যন্ত যানজটের কোনো খবর পাইনি। যানজট হবে না একথা আমি বলি না। মাঝেমাঝে গাড়ি বিকল হয়ে যায়, এক্সিডেন্ট হয় এসব কারণে যানজট সৃষ্টি হয়।

তিনি বলেন, ড্রেজিং করে গোমতীতে ফেরি চলাচলের উপযোগী করা হয়েছে। মেঘনা-গোমতীতে ডিসেম্বরে নতুন সেতু উদ্বোধনের আগ পর্যস্ত ফেরি সার্ভিস চালু থাকবে।