দাড়ির খুশকি দূর করার উপায় - Ways to get rid of beard dandruff

দাড়িতে খুশকি? কীভাবে দূর করবেন?

শীতকালে চুলে খুশকির সমস্যার পাশাপাশি অনেকের দাড়িতেও খুশকি দেখা যায়। এখন পুরুষদের মধ্যে দাড়ি রাখার প্রবণতা বেড়ে গেছে। শীতে দাড়ি রাখার যেমন সুবিধা আছে, তেমনই স্কিন কেয়ার রুটিন মেনে না চললে বিভিন্ন সমস্যাও দেখা দিতে পারে। মাথার চুলের মতো দাড়িও যত্ন নিতে হবে। 

দাড়িতে খুশকির কারণে একাধিক সমস্যা হতে পারে। খুশকির প্রভাবে চুলকানি, স্কিন র‍্যাসেস ও ফুসকুড়ি দেখা দেয়। চুলের খুশকি শ্যাম্পু ও নানা উপায়ে দূর করা গেলেও দাড়ির খুশকি দূর করাটা একটু মুশকিল। কারণ ভুল উপায়ে দাড়ির যত্ন নিলে ত্বকের ক্ষতি হয়। তাহলে জেনে নিন কীভাবে দাড়ির খুশকি থেকে মুক্তি পাবেন। 

কীভাবে দূর করবেন

মাথার চুলের পাশাপাশি অনেকের দাড়িতেও খুশকি হয়। খুশকি হলে ত্বকে চুলকানি হতে পারে। বাইরে বেরোলে মাথা বা দাড়ির খুশকি অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। খুশকি মূলত মরা চামড়া। এটি একটি সাধারণ সমস্যা। তবে বেশি পরিমাণে হলে সেটি ভীষণ বিরক্তির কারণ। চলুন জেনে নেয়া যাক শীতে দাড়ির খুশকি দূর করার সহজ কিছু উপায়-

হালকা গরম পানি ব্যবহার

মুখে গরম বা খুব ঠান্ডা পানির বদলে হালকা গরম পানি ব্যবহার করুন। ফরে ত্বকের প্রাকৃতিক তেল নষ্ট হবে না ও ত্বক অতিরিক্ত শুষ্কও হয়ে উঠবে না।

ময়েশ্চারাইজড রাখুন 

দাড়িকে শীতের সময়টাতে ময়েশ্চারাইজ করা খুবই দরকার। দাড়ির যত্ন নেয়ার অনেকগুলো পণ্য রয়েছে, যেগুলো আপনার দাড়িকে ময়েশ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। এগুলো ব্যবহারে ত্বকের চুলকানি প্রতিরোধ হয় এবং ত্বককে আর্দ্র করে। 

ক্লিনজার ব্যবহার করুন

ভালো ক্লিনজার দিয়ে সব সময় দাড়ি পরিষ্কার করুন। প্রাকৃতিক উপাদানসমৃদ্ধ ও ল্যাকটিক অ্যাসিডযুক্ত ক্লিনজার দাড়ির জন্য সবচেয়ে ভালো। সপ্তাহে দু-তিন করলেই যথেষ্ট।

তেল ব্যবহার করুন

দাড়ি ও ত্বককে নরম রাখতে ব্যবহার করুন নারকেল তেল, বেবি অয়েল, ভিটামিন-ই সমৃদ্ধি তেল অথবা এক্সট্রা ভার্জিন অয়েল। শ্যাম্পু করার আগে অবশ্যই তেল ম্যাসাজ করুন। এতে দাড়ির খুশকি দূর হবে, ঝরে পড়া কমবে।

দাড়ি আঁচড়াতে হবে

দাড়ির খুশকি দূর করতে নিয়মিত গোসলের আগে অবশ্যই শক্ত ব্রিসলস দেওয়া বিয়ার্ড্র ব্রাশ দিয়ে আলতোভাবে এক্সফোলিয়েট করুন। সার্কুলার মোশনে এক্সফোলিয়েট করলে সবচেয়ে ভালো ফল মিলবে।

পরিষ্কার রাখুন 

চুলের মত দাড়িকেও নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন। যখন আপনার দাড়ি খুব বড় আকার ধারণ করে তখন এটি বেশ অস্বাস্থ্যকর হয়ে ওঠে। কারণ ত্বকের মৃত কোষগুলো দাড়িতে জমা হয় এবং ব়্যাশের সৃষ্টি করে। যা থেকে চুলকানির সমস্যা দেখা দেয়। তাই প্রতিদিন আপনার দাড়ি পরিষ্কার এবং স্বাস্থ্যকর রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দাড়ি ধোয়ার জন্য প্রাকৃতিক উপাদানগুলোর সঙ্গে হালকা সালফেট-মুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।

কন্ডিশনিং করুন 

মাথার চুলের মতই আপনার দাড়িকে নরম রাখতে শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার ব্যবহার করুন এবং কয়েক মিনিট পর এটি ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। দাড়ি শুকানোর জন্য ব্যবহার করুন নরম তোয়ালে। তবে গায়ে ব্যবহার করা সাবান দিয়ে দাড়ি পরিষ্কার করবেন না। উন্নত মানের টক্সিন ফ্রি শ্যাম্পু দিয়ে দাড়ি পরিষ্কার করুন এবং কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।

তথ্যসূত্র: daily-bangladesh.com