নটে শাকের উপকারিতা
নটে শাক

পরিচিতিঃ

নটে শাক হচ্ছে উষ্ণমন্ডলীয় অঞ্চলের উদ্ভিদ। বাংলা নামঃ নটে, নটেশাক, খুড়িয়া শাক, আমনটে, খুদুরি, বৈলবলি শাক, মারিশ, এর বৈজ্ঞানিক নামঃ Amaranthus viridis নোটে শাক মূলত দুই প্রকারের- সবুজ নটে ও লাল নটে।

পুষ্টিগুণঃ

নটে শাকের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং পুষ্টিগুণ রয়েছে, যার দরুন অনেক রোগের হাত থেকে আমাদের রক্ষা করে । রক্ত পরিষ্কার করার ক্ষেত্রেও নটে শাকের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটিতে প্রোটিন, ফ্যাট, আয়রন, কার্বোহাইড্রেট, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস প্রভৃতি বিদ্যমান। 

নটে শাকের উপকারিতা

১.পোকা মাকড়ে কামড়ালে নটে শাকের রস চিনি মিশিয়ে খেলে কামড়ের বিষও নেমে যায়।

২.নটে শাক শরীরের পক্ষে খুবই ভালো।নিয়মিত নটে শাক খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

৩.প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া হলে নটে শাকের ক্ষার বা লবণ তৈরি করে নিয়মিত খেলে প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া কমে যাবে।

৪.নটে শাকের পাতার রস খেলে  রক্তপড়া বন্ধ হয় ও রক্তপিত্ত সারে।

৫.নিয়মিত নটে শাক খেলে চোখঁ জ্বালাপোড়া ও চোখেঁর সকল সমস্যা সেরে যাবে।

৬.নটে শাক খেলে ত্বকের রোগ, কুষ্ঠরোগ ও চর্মরোগের উপশম হয়। 

৭.নটে শাক খেলে শরীরের দুর্বলতা কেটে যায়।

৮.নটে শাকের পুলটিস তৈরি করে ফোঁড়ার ওপর বাধঁলে ফোঁড়া তাড়াতাড়ি পেকে ফেটে যায়।

৯.ব্রণে নটে শাকের রস লাগালে উপকার পাওয়া যায়।

১০.রক্তের দোষ দূর করতে নিয়মিত নটে শাক ভাজা খেলে উপকার পাওয়া যায়।

১১.নটে শাকের রস খেলে উদররোগ সারে ।

১২.বার্ধক্য প্রতিরোধে ও উচ্চ রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে নটে শাক যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে। 


পরবর্তী খবর পড়ুন : ঢোলপাতা বা কানশিরে উপকারিতা