গোপনাঙ্গ ফর্সা করার টিপস - Tips for grooming private parts

গোপনাঙ্গ ফর্সা করার টিপস - Tips for grooming private parts

পৃথিবীর অধিকাংশ নর-নারীর যৌনাঙ্গ ও তার নিকটবর্তী অঞ্চলের রঙ শরীরের বাকি অংশের তুলনায় খানিকটা গাঢ় হয়। এটা একটা স্বাভাবিক প্রাকৃতিক ঘটনা। তাই তোমার যৌনাঙ্গের রঙ মুখের তুলনায় কিছুটা কালো মনে হলেও সেটা নিয়ে চিন্তিত হবার কোন কারণ নেই।

প্রাকৃতিক উপাদান

টক দই:

এতে রয়েছে ল্যাকটিক অ্যাসিড। যা ব্লিচিংয়ের কাজ করে। কালো ছোপ-যুক্ত এলাকাগুলিতে টকদই ব্য়বহার করে ১০-১৫ মিনিট অপেক্ষা করার পর হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

বেসন:

এটি হল প্রাকৃতিক এক্সফোলিয়েটর। বেসনের সঙ্গে সামান্য জল মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। কালো ছোপ-যুক্ত এলাকায় এই পেস্ট লাগিয়ে শুকনো না হওয়া পর্য়ন্ত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

অ্যালোভেরা:

এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে খনিজ ও ভিটামিনের গুণাবলী। যে কোলাজেনকে আরও বৃদ্ধি ঘটিয়ে কালো থেকে উজ্জ্বল ও ফর্সা রঙ করতে সাহায্য করে। ২০-৩০ মিনিট ব্যবহারের পর স্বাভাবিক জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

অরেঞ্জ জুসের সঙ্গে হলুদ গুঁড়ো:

ত্বকের ফর্সাভাব আনতে হলুদের কোনও বিকল্প নেই। কমলালেবুর জুসের সঙ্গে এক চিমটে হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। ত্বকে লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট অপেক্ষা করার পর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

গোলাপজল ও চন্দনগুঁড়ো:

এই পেস্ট ত্বককে ময়েশ্চার করতে সাহায্য করে। শুষ্ক ত্বকের জন্য এই পেস্ট অত্যন্ত উপকারীও বটে।

শসার রস:

শসার রস যেকোনো স্পর্শ কাতর অঙ্গের দাগ দূর করার জন্য দারুন উপকারী।  এতে ত্বকের কোনো ক্ষতি হয় না। শসার রস লাগিয়ে রাখুন আপনার গোপন জায়গায়।২৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সরাসরি লাগাতে পারেন কিন্তু সমস্যা হতে পারে আপনার চলাফেরার অসুবিধা হতে পারে। এই জন্য আপনি শসার রস লাগান  কয়েকদিন ব্যবহারেই উপকার পাবেন।

লেবুর রস:

লেবুর রস এ  আছে প্রাকৃতিক ব্লিচ। কিন্তু এটি সরাসরি স্পর্শকাতর’ অঙ্গে ব্যবহার করা মোটেই বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। লেবুর রসের সাথে এক চিমটে হলুদ মিশিয়ে নিন এরপর একে আপনার গোপন স্থানে লাগান।  লেবুর রস ও হলুদ দাগ দূর করবে।২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ভুলেও সাবান ব্যবহার করবেন না।

আলুর রস:

কালো-ছোপযুক্ত জায়গায় আলুর রস ব্যবহার করুন। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বকের কোনও ক্ষতি করে না।

দুধ:

এতে রয়েছে ল্যাকটিক অ্যাসিড। ত্বকে ফর্সাভাব ও উজ্জ্বলতা ফেরাতে দুধের কোনও বিকল্প নেই। ক্ষতিগ্রস্ত জায়গায় দুধের প্রলেপ দিন। একঘণ্টা পর শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।