ডেঙ্গু হলে রক্তের প্লাটিলেট বাড়াতে যেসব খাবার খাবেন - Foods to eat to increase blood platelets if you have dengue
Foods to eat to increase blood platelets

ডেঙ্গু হলে রক্তের প্লাটিলেট বাড়াতে যেসব খাবার খাবেন - Foods to eat to increase blood platelets if you have dengue

এখন ডেঙ্গু হেমোরেজিক ফিভার বেশি হচ্ছে। এ রোগে আক্রান্ত বেশির ভাগ রোগীরই রক্তে প্লাটিলেটের সংখ্যা কমে যায়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডেঙ্গু জ্বর হলে সারা শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা হতে পারে। রক্তে প্লাটিলেট বা অণুচক্রিকার স্বাভাবিক মাত্রা দেড় লাখ থেকে সাড়ে চার লাখ। প্রায় ৯০ শতাংশ রোগীর প্লাটিলেট কমে যায়। এ ছাড়া নানা ধরনের ভাইরাস জ্বরেও প্লাটিলেট কমতে পারে। প্রথম থেকে ঠিকমতো চিকিৎসা করালে এবং সঠিক পরিমাপে তরল পদার্থ দিতে পারলে ডেঙ্গু মারাত্মক আকার ধারণ করে না।

প্লাটিলেট কী?

প্লাটিলেট হচ্ছে রক্তের এক ধরণের ক্ষুদ্র কণিকা বা অণুচক্রিকা, যা রক্ত জমাট বাঁধতে ও রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে সাহায্য করে। স্বাভাবিক মানুষের রক্তে প্লাটিলেটের হার প্রতি ১০০ মিলিলিটারে দেড় লাখ থেকে চার লাখ। প্লাটিলেটের মাত্রা এর থেকে কমে গেলে রক্তক্ষরণের ঝুঁকি দেখা দেয়। ২০ হাজারের নিচে প্লাটিলেটের সংখ্যা নেমে আসলে কোনো প্রকার আঘাত ছাড়াই রক্তক্ষরণ হতে পারে।

কীভাবে প্লাটিলেট বাড়াবেন?

ডেঙ্গু বা অন্য কোনো কারণে যদি রক্তে প্লাটিলেটের মাত্রা কমে যায় তবে খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তনের মাধ্যমে তা পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনা সম্ভব। সেজন্য খেতে হবে বিশেষ কিছু খাবার। এমন কিছু খাবার রয়েছে যা রক্তে প্লাটিলেট বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। প্লাটিলেট বাড়াতে পারে—এমন কয়েকটি খাবার সম্পর্কে জেনে নিন-

১.ডাবের পানি

ডেঙ্গু জ্বরের কারণে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। তাই শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে ডাবের পানি পান করলে উপকার পাওয়া যায়। এ ছাড়াও ডাবের পানিতে রয়েছে ইলেকট্রোলাইটসের মতো প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান।


২.পেঁপে পাতা ও পেঁপে

ডেঙ্গুর বেশির ভাগ ওষুধ তৈরি হয় পেঁপে পাতার রস থেকে। পেঁপে পাতার রসের এই ক্ষমতার বিষয়টি ১০ বছর আগে মালয়েশিয়ার ‘এশিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি’ তাদের সুস্পষ্ট গবেষণায় ব্যাখ্যা করে। পাতার গুণাগুণ তা ফলেও থাকে। তাই পেঁপে পাতার রস যেমন খাবেন তেমনি পেঁপেও খাবেন।


৩.ডালিম 

ডালিমে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও মিনারেল। এ সময় ডালিম খেলে বাড়বে প্লেটলেটের সংখ্যা। এই উপকারী ফলটি খেলে ক্লান্তি ও অবসাদ অনুভূতিও দূর হবে।  প্রতিদিন ১৫০ মিলি লিটার ডালিমের জুস দুই সপ্তাহ পান করুন।


৪.কুমড়া

শরীরে প্রোটিনের যোগান বাড়াতে উদ্ভিজ্জ উৎসগুলোর মধ্যে কুমড়া অন্যতম। এর প্রোটিনই প্লাটিলেট তৈরিতে সাহায্য করে। তাই রক্তে প্লাটিলেটের পরিমাণ বাড়াতে কুমড়ার বীজ ও কুমড়া দুটোই রাখুন খাবেন।


৫.রসুন

উপকারী এই মসলা রক্ত পরিশুদ্ধ করে ও প্লাটিলেট বাড়ায়। গবেষণায় দেখা গেছে, রসুনে থাকা থ্রম্বোক্সেন এ টু প্লাটিলেট বাড়ায়। প্রতিদিনের খাবারে তাই রসুন যুক্ত করুন। দুই তিন কোষ রসুন আলাদা করেও খেতে পারেন।


৬.পালংশাক

পালংশাকে প্রচুর পরিমাণে আয়রন এবং ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায়। এটি আবার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করতে সহায়তা করে। এই শাকটি বেশি করে গ্রহণ করলে অতিদ্রুত প্লাটিলেট বৃদ্ধি পায়।


৭.অ্যালোভেরার রস

অ্যালোভেরার রয়েছে রক্তকে বিশুদ্ধ করার ক্ষমতা। এছাড়া রক্তে যেকোনো জীবাণুর সংক্রমণ রোধ করতেও অ্যালোভেরা কার্যকরী। তাই ডেঙ্গু রোগীর রক্তের প্লাটিলেটের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে তাঁকে নিয়মিত অ্যালোভেরার জুস পান করাতে পারেন।


৮.দই

দই প্রোবায়োটিক খাবার। এতে থাকা ব্যাকটেরিয়া অন্ত্রকে ক্ষতিকর জীবাণুমুক্ত রাখতে কাজ করে। এটি রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ায়। ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীকে দৈনিক ১৫০ গ্রাম দই খেতে দিলে দ্রুত রোগ থেকে মুক্তি পেতে পারে।


৯.লেবুর রস

লেবুর রসে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘সি’ থাকে যা রক্তের প্লাটিলেটের পরিমাণ বাড়াতে খুবই  সহায়ক। এছাড়া এতে থাকা ভিটামিন ‘সি’ রক্তে প্লাটিলেট ধ্বংস হওয়া থেকে রক্ষা করে এবং রোগ প্রতিরোধেও ব্যাপক ভুমিকা পালন করে। তাই ডেঙ্গু রোগীকে প্রচুর লেবু শরবত খাওয়ানো উচিত।


১০.আমলকি

রক্তে প্লাটিলেট বাড়াতে খেতে পারেন আমলকিও। আমলকিতে আছে প্রচুর ভিটামিন ‘সি’। আছে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আছে। ফলে আমলকি খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে এবং প্লাটিলেট ধ্বংস হওয়া থেকে রক্ষা পায়।