শোথ বা ইডিমা হওয়ার কারণ ও চিকিৎসা-Edema causes and treatment
Edema treatment

ইডিমা বা শোথ কি? ইডিমার প্রকারভেদ, ইডিমা হওয়ার কারণ, লক্ষ্মণ, প্রতিকার ও চিকিৎসা -What is edema? Types of Edema, Causes of Edema, Symptoms, Remedies and Treatment

ইডিমা বা শরীরে পানি আসার সমস্যায় অনেকেই ভোগেন। শোথ (ইংরেজি: Edema), তরল ধারণ, বা ফোলা নামেও পরিচিত। এই রোগে অতিরিক্ত ফ্লুইড শরীরের কোষে জমা হলে হাত, পা, গোড়ালি বা বাহু ফুলে যেতে পারে। শোথের লক্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে ত্বকে টান অনুভব করা, আক্রান্ত অঞ্চলটি ভারী বোধ করা এবং আক্রান্ত সন্ধিগুলো স্থানান্তরিত হওয়া ইত্যাদি। শোথের অন্যান্য লক্ষণ অন্তর্নিহিত কারণের উপর নির্ভর করে। 

ইডিমা আসলে কী?

শরীরের টিস্যুতে অতিরিক্ত ফ্লুইড জমা হয়ে গেলে যে পরিস্থিতির তৈরি হয় তাকে ইডিমা বলা হয়। এতে করে শরীরের বিভিন্ন অংশে পানি এসে ফুলে যেতে পারে। ফোলা যায়গাটা যদি চাপ দিলে দেবে যায় তাহলে সেটাকে বলা হয় বলি পিটিং ইডিমা। অনেক সময় আবার দেবে যায় না। একে বলে নন পিটিং ইডিমা।

আরও পড়ুন: পায়ের গোড়ালি ফাটার কারণ ও প্রতিকার

প্রকারভেদঃ

* পেরিফেরাল ইডিমা: এটি পা, গোড়ালি, হাত এবং বাহুকে প্রভাবিত করে।

* পালমোনারি ইডিমা: এটি তখন ঘটে যখন ফুসফুসে অতিরিক্ত তরল জমা হয়, এবং শ্বাস নিতে সমস্যা হয়।

* সেরিব্রাল ইডিমা: এটি মস্তিষ্কে ঘটে। 

* পিটিং ইডিমা : শরীরের যেখানে ইডিমা হয়েছে সেখানে প্রয়োগ করা হলে ত্বকে একটি গর্ত সৃষ্টি হবে। 

* পেরিওরবিটাল ইডিমা : এটি চোখ বা চোখের চারপাশে তরল জমা হওয়ার কারণে ফোলাভাব হয় এবং সাধারণত অস্থায়ী হয়।

কারণসমূহঃ

* হার্ট ফেইলিওরঃ যদি হার্টের নিচের চেম্বারগুলির একটি বা উভয়ই সঠিকভাবে রক্ত ​​পাম্প করতে না পারে তবে অঙ্গ -প্রত্যঙ্গে রক্ত ​​জমা হতে পারে, যার ফলে ইডিমা হয়।

* কিডনির সমস্যা থাকলেঃ কিডনি রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীর রক্ত ​​থেকে পর্যাপ্ত তরল এবং সোডিয়াম নির্মূল করতে পারে না। এটি রক্তনালীর উপর চাপ সৃষ্টি করে, যার ফলে কিছু তরল বেরিয়ে যায়। পা এবং চোখের চারপাশে ফোলা হতে পারে।

* যকৃতের রোগঃ সিরোসিস এর কারণে এমন হয়ে থাকে সিরোসিস পোর্টাল শিরাতে চাপ বাড়ায়, যা বড় শিরা অন্ত্র, প্লীহা এবং অগ্ন্যাশয় থেকে লিভারে রক্ত ​​বহন করে। ইডিমা পা এবং পেটের গহ্বরে হতে পারে।

* নির্দিষ্ট কিছু ওষুধ ব্যবহার এ হতে পারেঃ ইস্ট্রোজেন, ডায়াবেটিস এর ওষুধ, কেমোথেরাপির ওষুধ ব্যবহার এ হতে পারে। 

* গর্ভাবস্থায় ইডিমা হতে পারে। 

* খাদ্য তালিকায় কিছু খাবার, যেমন লবণ বেশি খেলে এবং ভিটামিন বি১, বি৫, বি৬ এর ঘাটতি থাকলে ইডিমা হতে পারে।

আরও পড়ুন:  গর্ভাবস্থায় অতিরিক্ত বমি হলে করণীয়

লক্ষণঃ

* ত্বক ফোলা, প্রসারিত এবং চকচকে দেখায়।

* ত্বকে চাপ প্রয়োগ করলে তা কয়েক  সেকেন্ড এর জন্য গর্ত হয়ে যায়।

* গোড়ালি, মুখ বা চোখের ফোলাভাব থকে।

* শরীরের অংশ এবং শক্ত জয়েন্টগুলোতে ব্যথা থাকে।

* ওজন বৃদ্ধি বা ওজন হ্রাস পায়।

* প্রস্রাব উৎপাদন হ্রাস পায়।

প্রতিরোধঃ

# লবণ খাওয়া কমানো।

# ওজন বেশি হলে ওজন কমানো

# নিয়মিত ব্যায়াম করা

# যখন রক্ত ​​চলাচল সহজ করতে পা উঁচুতে রাখা।

# খুব বেশি সময় ধরে বসে বা দাঁড়িয়ে না থাকা।

# অতিরিক্ত গরম পরিবেশ এড়িয়ে যাওয়া। 

আরও পড়ুন: গর্ভাবস্থায় ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া

রোগ নির্ণয়ঃ

ত্বকের শোথকে "পিটিং শোথ" হিসাবে উল্লেখ করা হয় যখন একটি ছোট অঞ্চলে চাপ প্রয়োগ করার পরে চাপটি স্পষ্ট হয় এবং পরে চাপ দেওয়া স্থানে খাঁজটি কিছুসময় স্থায়ী হয়। পেরিফেরাল পিটিং শোথ, যেমন চিত্রে দেখানো হয়েছে, এটি জল ধারণ করার ফলে সৃষ্ট শোথের আরও একটি সাধারণ ধরন। এটি একটি সিস্টেমিক রোগ। কোনও কোনও মহিলার গর্ভাবস্থায় সরাসরি বা হার্ট ফেইলিউরের ফলে বা স্থানীয় অবস্থার কারণে যেমন ভেরিকোজ শিরা, থ্রোম্বফ্লেবিটিস, পোকার কামড় এবং চর্মরোগের দ্বারা সৃষ্টি হতে পারে ।

ইনডেন্টেশন চলতে না থাকলে নন-পিটিং শোথরোগ পর্যবেক্ষণ করা হয়। এটি লিম্ফিডেমা, লিপিডেমা এবং মিক্সিডিমার এর মতো অবস্থার সাথে যুক্ত।

চিকিৎসাঃ

চিকিৎসার অন্তর্নিহিত কারণ বের করে চিকিৎসা করা উচিত। হৃৎপিণ্ড বা বৃক্কজনিত শোথ রোগের ক্ষেত্রে মূত্রবর্ধক দিয়ে চিকিৎসা করা হয়।

চিকিৎসা অবস্থার উন্নতি করতে শরীরের ক্ষতিগ্রস্থ অংশের অবস্থান চিহ্নিত করতে হবে। পায়ের গোড়ালি বা গোড়ালির ফোলাভাব হ্রাস করার জন্য ব্যক্তি বিছানায় শুয়ে থাকে বা পায়ে কুশন দিয়ে বসে থাকে। সর্বোপরি রোগের কারণ ও আক্রান্ত স্থান বের করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

আরও পড়ুন:  গর্ভাবস্থায় পা ফুলে যাওয়ার কারণ ও করণীয়

What is the best cure for edema?What are the 4 primary causes of edema?What is the cause of edema?How is edema controlled?how to treat edema,can edema kill you,oedema vs edema,how to drain edema fluid,is edema dangerous,what causes edema in legs,how to treat edema,can edema kill you,oedema vs edema,how to drain edema fluid,is edema dangerous,what causes edema in legs,পা ফোলা কিভাবে কমানো যায়?শুধুমাত্র একটি পায়ের গোড়ালি ফুলে যায় কেন,পা ফোলা রোগের ঔষধ,পা ফুলে গেলে কোন ডাক্তার দেখাবো,ফোলা কমানোর ওষুধ,পা ফোলা কমানোর হোমিও ঔষধ,পা ফোলা কেন হয়,হঠাৎ হাত পা ফুলে যাওয়ার কারণ,পা ফুলে যাওয়া কিসের লক্ষণ,পা ফোলার কারণ ও প্রতিকার,পা ফুলে রোগের কারণ ও চিকিৎসা ,পা ফলা কি রোগ

তথ্যসূত্র: clearconceptfamily.com
গর্ভাবস্থায় পানি কমে যাওয়ার লক্ষণ - Symptoms of water loss during pregnancy
শিশুর যেসব ওষুধ ঘরে রাখবেন
পানিশূন্যতা দূর করার উপায় - Ways to cure dehydration
গর্ভাবস্থায় কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার উপায় - Ways to relieve constipation during pregnancy