যৌন ইচ্ছা কমিয়ে দেয় যেসব খাবার - Foods that reduce sex drive
Foods that reduce sex drive

যৌন ইচ্ছা কমিয়ে দেয় যেসব খাবার - Foods that reduce sex drive

অনেক ক্ষেত্রেই শারীরিক সম্পর্কের অবনতি দাম্পত্য জীবনকে ভয়াবহ অস্বস্তিতে ফেলে দেয়। কিন্তু জানেন কি যৌন ইচ্ছা শেষ হওয়ার পেছনে আমাদের গাফিলতিই অধিক মাত্রায় কাজ করে। যেসব খাবার খেলে যৌন ইচ্ছা বাড়ে, তার তালিকা জানেন অনেকেই। কিন্তু এমন অনেক খাবার আছে যা আস্তে আস্তে যৌন ইচ্ছা কমিয়ে দেয়। এগুলোকে বলা হয় অ্যানাফ্রোডিসিয়াক খাবার। তাই যৌন জীবনে সুখী থাকতে চাইলে খাবারের তালিকা থেকে এই খাবারগুলো বাদ দেয়া কিংবা এগুলো খাওয়া কমিয়ে দেয়াই ভালো।

১. অ্যালকোহল

অতিরিক্ত অ্যালকোহল গ্রহণ মানসিক অবসাদের দিকে ঠেলে দেবে আপনাকে। পুরুষেরা অতিরিক্ত অ্যালকোহলে আসক্ত হয়ে পড়লে তাদের শরীরে টেস্টোস্টেরনের মাত্রাও উল্লেখযোগ্যভাবে কমে যায়। আর এই সবগুলোই সেক্সুয়াল ড্রাইভের মরে যাওয়ার অনুঘটক মাত্র।

২.ক্যানড খাবার

বর্তমানে ক্যানড খাবারের প্রতি নির্ভরশীল হয়ে পড়ছেন কেউ কেউ। এ ধরনের খাবারে সোডিয়ামের পরিমাণ বেশি ও পটাশিয়ামের পরিমাণ কম থাকে। এই কম্বিনেশন আপনার শারীরিক মিলনের অর্গ্যানে রক্তের সঞ্চালন কমিয়ে সেগুলোকে ঝিমিয়ে পড়তে বাধ্য করে। তাই ক্যানড খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন।

৩.কৃত্রিম চিনি

কৃত্রিম চিনি শরীরে সেরোটোনিনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। মানুষের সুখ অনুভব, কিংবা তাদের মানসিক অবস্থা এই সেরোটোনিনের উপর নির্ভরশীল। সেরোটোনিনের অভাবের কারণে মানুষের মাথাব্যথা করে, তারা হতাশা ও বিরক্তিতে ভোগে। যা যৌন আগ্রহের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে কাজ করে ডোপামিন। কৃত্রিম চিনি মানবদেহের এই পদার্থটিকে প্রভাবিত করে।

৪. টিনজাত খাদ্য

বেশির ভাগ টিনজাত খাদ্যে বেশি পরিমাণ সোডিয়াম ও সামান্য পরিমাণ পটাশিয়াম থাকে। টিনজাত খাদ্য মানবদেহের বিভিন্ন অঙ্গে রক্তের স্বাভাবিক গতিতে বাধার সৃষ্টি করে।

৫. যষ্টিমধু

যষ্টিমধু দিয়ে তৈরি চা খেতে অনেকেই অভ্যস্ত। যষ্টিমধু শরীরে করটিসলের মাত্রা কমিয়ে দেয়। এর ফলে শরীরে টেসটোসটের মাত্রা কমে যায়। ফলে মানুষের যৌন আচরণে এটি নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। তাই যষ্টিমধুর চায়ের পরিবর্তে সবুজ চা খাওয়া যেতে পারে।

৬.চিজ

চিজ খেতে মজা লাগে নিশ্চয়ই? কিন্তু বাজারে যে প্রসেসড চিজ কিনতে পাওয়া যায় তা গরুর দুধে তৈরি হলেও তাতে মেশানো হয় নানা ধরনের গ্রোথ হরমোন এবং অ্যান্টিবায়োটিক। তাই চিজ বেশি খেলে মেয়েদের শরীরে এক ধরনের হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। এটি তাদের মধ্যে শারীরিক মিলনের ইচ্ছেকে মেরে ফেলে। এমনকী, নানা ধরনের শারীরিক মিলনের ডিসফাংশনও হতে পারে চিজ বেশি খেলে। তাই চিজ খেলে একটু রয়ে-সয়ে খাবেন।

৭.সয়া

সয়াবিন থেকে তৈরি বেশিরভাগ পণ্যই সাইটোয়েস্ট্রোজেন নামে একটি রাসায়নিক পদার্থ থাকে। এটি পুরুষ ও নারীর দেহে হরমোনের ভারসাম্যে বিরূপ প্রভাব ফেলে। একটি গবেষণায় দেখা গেছে, বিশ্বব্যাপী যারা সয়া পণ্য ভোগ করে তাদের মধ্যে যৌন আগ্রহ কম। তাই যেসব পুরুষ সন্তান গ্রহণের কথা ভাবছেন তারা খাদ্য তালিকা থেকে সয়া একদম বাদ দিয়ে দিন। কারণ সয়া শুক্রাণুর পরিমাণও কমিয়ে দেয়।

৮.পুদিনা পাতা

সুগন্ধির জন্য পুদিনা পাতা অনেক বেশি জনপ্রিয়। কিন্তু যৌন জীবনের জন্য এটি মোটেও ভালো নয়। এটি শরীরে যৌন উদ্দীপনা সৃষ্টিকারী হরমোন টেসটোসটের মাত্রা কমিয়ে দেয় যা শরীরকে ঠাণ্ডা করে দেয় এবং যৌন আগ্রহ কমিয়ে দেয়। তাই সুগন্ধির জন্য পুদিনা বাদ দিয়ে আদা খাওয়ার অভ্যাস করা যেতে পারে। আদা অনেক ভালো।

৯. কফি

কফির অসংখ্য উপকারিতা রয়েছে। আবার রয়েছে ক্ষতিও। কফি শরীরে অ্যাড্রিনাল গ্ল্যান্ডগুলিকে সক্রিয় করে নানা ধরনের স্ট্রেস হরমোনের ক্ষরণ বাড়ায়। এই ধরনের হরমোন আবার সেক্স হরমোন ও থাইরয়েডের ব্যালান্সে তারতম্য ঘটিয়ে যৌন ইচ্ছা কমিয়ে দেয়।

১০.ময়দা

যে প্রক্রিয়াজাত ময়দা দিয়ে সবকিছু বানানো যায়, সে ময়দা যৌন আকাঙ্ক্ষা কমিয়ে দেয়। এ ময়দা তৈরিতে এমন সব উপাদান ব্যবহৃত হয় যা সেক্সের জন্যে দারুণ ক্ষতিকর। অন্যান্য গমের ময়দার চেয়ে এসব প্রক্রিয়াজাত ময়দায় জিঙ্কের পরিমাণ তিনগুন কম থাকে। এ ছাড়া প্রক্রিয়াজাত ময়দা দেহে ইনসুলিন উৎপাদন প্রতিহত করে। ফলে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।

১১.পনির

গরুর দুধ থেকে তৈরি পনির এখন সুপার মার্কেটে খুবই সহজলভ্য। পনির ছাড়া অনেকের নাশতাই যেন জমে না। পনিরকে হরমোন ও অ্যান্টিবডি তৈরির কৃত্রিম উৎসও মনে করা হয়। তবে বেশি মাত্রায় পনির খেলে শরীরে এস্ট্রোজেন-জাতীয় পদার্থের নিঃসরণ হয়, যা মানুষের যৌন আকর্ষণ কমিয়ে দেয়। এমনকি এর প্রভাবে যৌনশক্তি লোপ পেতেও পারে।

১২. মদ

একটু মদ পান আপনার যৌন আকাঙ্ক্ষা বাড়িয়ে দিতে পারে। তবে অতিরিক্ত মদ খেলে তার পরিণাম কিন্তু সাংঘাতিক। কারণ অতিরিক্ত অ্যালকোহল যৌন জীবনে মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। ইরেক্টাইল সমস্যা সহ, ঠিকভাবে অর্গাজম না হওয়া এবং মিলনের শুরুতেই দ্রুত বীর্যপাত হয়ে যাওয়ার কারণ হতে পারে অতিরিক্ত মদ পান করা। তাছাড়া অ্যালকোহল আর রিচ ফুড সবসময় আপনাকে তন্দ্রাচ্ছন্ন করে রাখে, ফলে আপনি সেক্সের ব্যাপারে আর উৎসাহ বোধ করেন না।

১৩. আর্টিফিসিয়াল সুইটনার

আর্টিফিসিয়াল সুইটনারের মধ্যে একটি উপাদান থাকে তা শরীরের হ্যাপি হরমোন নষ্ট করে ফেলে। এর ফলে আপনার লিবিডো সাফার করে। এর কিছু সাইড এফেক্টস আছে যেমন মাথাব্যথা, অ্যানসাইটি ডিসওর্ডার আর ইনসোমনিয়া। তাই পরেরবার দোকানে গেলে ন্যাচারাল সুইটনার যেমন- মধু অথবা গুড় কিনুন। এতে আরো মধুময় হবে আপনার যৌন জীবন।

১৪. ক্রিস্পি ডিলাইটস

বেডরুমে এক প্যাকেট চিপস আপনার শরীরের বিভিন্ন টিস্যু আর সেল নষ্ট করে দেয়, সেই সঙ্গে আপনার লিবিডোকেও শেষ করে দেয়। পট্যাটো চিপস রেপসিড তেলের মধ্যে ভাজা হয় খুব হাই টেম্পাচারে। তাই ব্যাড ফ্যাট আর হাই টেম্পেরেচার আপনার ‘মুড ফর লাভ’ একেবারে শেষ করে দিতে পারে।

১৫.বেরি জাতীয় ফল

স্বাস্থ্যের জন্যে দারুণ উপকারী বেরি জাতীয় ফল। কিন্তু এর ভক্ষণযোগ্য ত্বকে থাকে কীটনাশক। এই ত্বক ইস্ট্রোজেনের ক্ষরণমাত্রা বৃদ্ধি করে। তবে যদি অর্গানিক ও কীটনাশকমুক্ত বেরি খাওয়া যায়, তবে তা যৌন আকাঙ্ক্ষা বৃদ্ধি করতে পারে।

তথ্যসূত্র: সোনালি নিউজ