দাঁতের হলুদ দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায় - Home remedies to remove yellow stains on teeth
Remove Tooth Stains

দাঁতের দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়

দাঁত সাদা হলে তা আপনার চেহারার সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেবে অনেকটাই। সুন্দর দাঁতের মানে হলো হাসিও সুন্দর। সুন্দর হাসির মালিক হলে সবার মন জয় করাও সহজ হয়ে যায়। এদিকে যে দাঁত আপনি সব সময় সাদা রাখতে চান, বিভিন্ন কারণে তা হলুদ হয়ে যেতে পারে। তখন দেখতে আর সুন্দর লাগে না। আপনার হাসি হতে শুরু করে মলিন। এটি কখনো কখনো হয়ে দাঁড়ায় অস্বস্তির কারণ। 

দাঁত সাদা করার জন্য একগাদা টাকা খরচ করার দরকার নেই। ঘরোয়া কিছু উপায় মেনে বলতে গেলে বিনা খরচেই পেতে পারেন ঝকঝকে সাদা দাঁত। এই উপায়গুলো মেনে চললে দাঁতের হলুদ দাগ দূর হতে সময় লাগবে না। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

১.অ্যালোভেরা এবং গ্লিসারিন

এই টুথপেস্টটি তৈরি করতে আধা কাপ বেকিং সোডা, ১ চা চামচ অ্যালোভেরা জেল, ৪ চা চামচ ভেজিটেবল গ্লিসারিন এবং ১ চা চামচ লেমন এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিন। এরপর এই মিশ্রণ দিয়ে দাঁত ব্রাশ করুন। মুহূর্তেই পেয়ে যান সাদা, উজ্জল এবং সুস্থ দাঁত।

২.তুলসি

তুলসি পাতার ব্যবহার করলেও ভালো ফল পাবেন। ১৫-২০ টি পরিষ্কার তুলশি পাতা দিয়ে টুথপেষ্ট বানিয়ে নিন, নিয়মিত ব্রাশ করুন, দাঁত হবে ঝকঝকে-দাগহীন।

৩.তিলের বীজ

একমুঠো তিলের বীজ নিয়ে কয়েক মিনিট চিবিয়ে ফেলে দিন। এর পর দাঁতের ফাঁকে আটকে থাকা বীজ বের করতে পেস্ট ছাড়া দাঁত ব্রাশ করুন। এটা হচ্ছে খুব সহজে দাঁতের দাগ দূর করার দীর্ঘ মেয়াদি টিপস। নিয়মিত এই কাজ করলে ধীরে ধীরে দাঁতের সমস্ত দাগ দূর হয়ে যাবে।

৪.লবন

লবণ দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করা একটি প্রাচীন পদ্ধতি। লেবুর খোসাতে এক চিমটি লবণ দিয়ে তা দাঁতে ঘষুন, এতে দাঁতের দাগ চলে যাবে। লেবুতে থাকা ভিটামিন থাকা ভিটামিন সি এবং লবণ ময়লা পরিষ্কার করতে সাহায্য করে।

৫.পুদিনা পাতা

পুদিনা পাতা রোদে শুকিয়ে গুঁড়ো করে প্রত্যেকদিন টুথপেস্টের সঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করুন। এছাড়া দাঁত পরিষ্কার করতে পুদিনা পাতার পেস্টের সঙ্গে সামান্য সরিষার তেল মিশিয়েও ব্যবহার করতে পারেন।

৬.পোড়া কাঠকয়লা

আগে অনেকেই দাঁত পরিষ্কারের কাজে পোড়া কাঠকয়লা ব্যবহার করতেন। আপনিও এই পদ্ধতি কাজে লাগাতে পারেন। পোড়া কাঠকয়লা বা ঘুঁটের ছাই নিয়ে ভালো করে হাতে পিষে নিজের আঙুলের সাহায্যে দাঁতে ঘষুন। দাঁত পরিষ্কার হবে।দাঁতকে সুন্দর ও সাদা ঝকঝকে করে তুলতে যত্নের প্রয়োজন। আপনার সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে ঝকঝকে সাদা দাঁতের বিকল্প নাই।

৭.ভিটামিন টুথ মাস্ক

ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল এবং সবজি ভর্তার নামই হচ্ছে ভিটামিন টুথ মাস্ক। এই মাস্ক তৈরি করে দাঁতে লাগালে দাঁত ঝলমলে পরিষ্কার হয়ে যায়। টমেটো এবং কমলা ভালো করে বেটে দাঁতের উপর প্রলেপ দিয়ে ৫-৬ মিনিট অপেক্ষা করুন এবং পরে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে শুধু দাঁতই পরিষ্কার হবে না, মুখের ক্ষতিকর জীবণুও দূর হবে।

৮.কলার খোসা

দাঁতের যত্নে অন্য তম উপকারী উপাদান হল কলার খোসা। একটা কলার খোসা নিতে হবে। তার ভেতরের সাদা অংশটা দুই মিনিট দাঁতে ঘষতে হবে। মোটামুটি ভাবে এক থেকে দুই সপ্তাহ এ ভাবে দাঁতের যত্ন নিলে হলদে ভাব দূর হবে। তবে একটি বিষয় হল খোসাটি ছাড়ানোর পর সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবহার করতে হবে। তবেই উপকার পাওয়া যাবে। কিছু দিন ফেলে রেখে খোসার ব্যবহার করলে তা বেকার। কোনো কাজেই লাগবে না।

৯.মাশরুম

মাশরুমে থাকে প্রচুর পরিমাণ পলিস্যকারাইড, যা মুখের জীবাণুকে ধ্বংস করে। ফলে দাঁতে ময়লার আস্তরণ জমে না।

১০.নিম গাছের ছাল

আমরা সবাই জানি যে নিমের মধ্যে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্যে রয়েছে। নিম গাছের ছাল বা ডাল দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করলে দাঁতের সব সমস্যাই দূর হয়ে যাবে। সপ্তাহে তিনবার আপনি এই প্রতিকারটি ব্যবহার করতে পারেন।

১১.পেয়ারা পাতা ও নিম

ভারতে নিমের দাঁতনের প্রচলন শতকের পর শতক ধরে। আর সেটা যে বিনা কারণে নয় তা বলাই বাহুল্য। দাঁতের কালো দাগ তুলতে নিমের দাঁতনের সঙ্গে মিশিয়ে নেওয়া যেতে পারে পেয়ারা পাতার রস, দাঁতের দাগ দূর হবে ম্যাজিকের মতো।

১২.স্ট্রবেরি

প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি সমৃদ্ধ স্ট্রবেরি দাঁত সাদা করে তোলে। সপ্তাহে অন্তত ২ দিন স্ট্রবেরির পেস্ট তৈরি করে ব্যবহার করলে আশানুরূপ ফল পেতে পারেন। স্ট্রবেরি পেস্টের সঙ্গে সামান্য বেকিং সোডা মিশিয়েও ব্যবহার করতে পারেন।