ভোলার বোরহানউদ্দিন কুতুবা ইউপি'র অস্থায়ী কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ, পুড়ে গেছে গুরুত্বপূর্ণ নথি পত্র
আগুনে পুড়ে ডাওয়া নথী পাত্র

জেলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুতুবা ইউনিয়ন পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে পুড়ে গেছে কার্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ নথি পত্র। বৃহস্পতিবার  মধ্যরাতে এই আগুন দেয়ার সূত্রপাতের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে শুক্রবার বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুর রহমান ও বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন

প্রত্যক্ষদর্শীরা ও মানিকার হাট বাজারের পাহারাদার জানান, মধ্য রাতে কে বা কারা আগুন লাগিয়েছে তা কেউই জানেনা না। তবে মধ্য রাতে আগুন দেখে স্থানীয় মানুষ জন ছুটে আসে। এরপর কার্যালয়ের তালা ভেঙ্গে শাটার খুলে দেখতে পায় ভিতরে গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্রগুলোতে আগুন জ্বলছে। এমতাবস্থায় স্থানীয়রা নিজেদের প্রচেষ্টায় আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। এরইমধ্যে পুড়ে গেছে কার্যালয়ের থাকা গুরুত্বপূর্ণ সকল নথিপত্র। কুতুবা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মুকিম জান বলেন, কে বা কারা মধ্য রাতে আগুন লাগিয়েছে আমি জানি না। কিন্তু পরক্ষনে দেখতে পেলাম সেখানে থাকা বিভিন্ন ধরনের গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র সবই নষ্ট হয়ে গেছে।

প্রাথমিকভাবে বিষয়টি কারো উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এমনটিই দাবি করে বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিন ফকির বিপিএম বলেন, আগুন লাগানোর ঘটনা আমরা শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করব।

এমনকি  উল্লেখ্য, এই কার্যালয়টি ২০০৮ সাল থেকে কুতুবা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় হিসেবে কার্যক্রম চলছিল। গেল চার মাস আগে কুতুবা ইউনিয়ন পরিষদের সংস্কার কাজ চলায় সেখানকার কার্যক্রম এই অফিসেই নিয়ে আসা হয়। এরপর থেকে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম এখানেই চলে আসছে। এমনকি চলমান ইউপি নির্বাচনে কুতুবা ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী নাজমুল আহসান জোবায়েদ মিয়া তার নির্বাচনী ক্যাম্প হিসেবেও এটিকে ব্যবহার করছেন।