চরফ্যাসনের শশীভূষণ প্রেমের ফাঁদে কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা
প্রতীক ছবি


চরফ্যাসনের শশীভূষণ প্রেমের ফাঁদে ফেলে কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে জুয়েল নামের এক কথিত প্রেমিকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার রাতে হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের মাইনউদ্দিন মৎস্য ঘাট সংলগ্ন এলাকায় ভিক্টিমের বসত বাড়ির রান্না ঘরে এঘটনা ঘটে। গতকাল বুধবার ভিক্টিম কিশোরীর মা বাদী হয়ে একজনকে আসামী করে শশীভূষণ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্ত জুয়েল শশীভূষণ থানার হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের সংরক্ষতি মহিলা ইউপি সদস্য নিলুফা বেগম টিনার ছেলে।
অভিযোগ ও ভিক্টিম জানান, হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের সংরক্ষতি মহিলা ইউপি সদস্য নিলুফা বেগম টিনার ছেলে জুয়েল তাকে দীর্ঘদিন যাবত প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। বিয়ের প্রতিশ্রæতি দেয়ায় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের সুত্রধরে প্রেমিক জুয়েল ভিক্টিমকে দেখা করার জন্য রাতের আধাঁরে ঘরের বাহিরে ডাকতেন। তার ডাকে রাতে ঘরের বাহির হননি ভিক্টিম কিশোরী। মঙ্গলবার রাতে তার পরিবারের সদস্যরা ঘরে সুয়ে ছিলেন। কিাশোরী রান্না ঘরে কাজ করছিলেন। ওই সময় প্রেমিক জুয়েল রান্না ঘরে এসে কিশোরীর সাথে দেখা করেন। এবং তাকে মুখ চেপে টেনে হেঁচড়ে ঘরের বাহিয়ে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করেন। তার চিৎকারে বাবা ছুটে এসে ধর্ষক জুয়েলকে আটক করে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তার বাবাকে মারধর করে জুয়েল পালিয়ে যায়। অভিযুক্ত যুবক জুয়েল পলাতক থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। তবে তার মা সংরক্ষিত ইউপি সদস্য নিলুফু বেগম টিনা জানান, পরিকল্পিত ভাবে তার ছেলে জুয়েলকে আটক করে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলেছে।
শশীভূষণ থানার ওসি মো.রফিকুল ইসলাম জানান, কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনায় ভিক্টিমের মা বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগটি তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।   


পরবর্তী খবর পড়ুন : দন্ড কলস এর উপকারিতা