১০ বছরের শিশুর বিরুদ্ধে বলৎকারের অভিযোগে মামলা
প্রতীক ছবি


চরফ্যাসনের জিন্নাগড় ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে ৬ বছরের শিশুকে বলৎকারের অভিযোগ তুলে ফয়েজ নামের ১০ বছরের শিশুর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার শিশুর বাবা বাদী হয়ে শিশু ফয়েজসহ তার বাবা ও মাকে আসামী করে চরফ্যাসন থানায় মামলাটি দায়ের করেন। ফুটবল খেলা নিয়ে  বিরোধেকে পুঁজি করে মারামারির ঘটনায় জড়িত প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করে ১০ বছরের শিশুকে ১৫ বছর দেখিয়ে থানাকে  বিভ্রান্ত করে স্থানীয় স্কুল ছাত্র নিষ্পাপ শিশু ফয়েজকে ১৫ বছর দেখিয়ে  মামলাটি দায়ের করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মামলায় শিশুটির বাবা এবং মাকেও আসামী করা হয়েছে। চরফ্যাসন থানা পুলিশ শিশু ফয়েজকে গ্রেপ্তার করে চরফ্যাসন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করলে  বিজ্ঞ বিচারক আসামী শিশু হওয়ায় মামলাটি ভোলার শিশু আদালতে প্রেরন করেছেন।
বলৎকারের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার আর্জিতে বাদী দাবী করেন, প্রতিবেশী ফয়েজ তার নাবালক ৬ বছর বয়সী পুত্রকে বিভিন্ন সময় খারাপ কথা বার্তা বলতেন। ঘটনার দিন ৯ জুলাই তার শিশু পুত্রকে অভিযুক্ত ফয়েজের ঘরের সামনে পেয়ে কথা শোনার জন্য ঘরের পিছনে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক বলৎকার করেন। শিশুর চিৎকারে প্রতিবেশী এক নারী ছুটে এলে ফয়েজ পালিয়ে যান। এসময় শিশুকে উদ্ধার করে গ্রাম্য চিকিৎসক দিয়ে  চিকিৎসা করান। তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ১৫ জুলাই চরফ্যাসন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি ফয়েজের পরিবারকে জানালে তারা অভিযুক্ত ফয়েজকে পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করায় তিনি তার পুত্রকে বলৎকারের অভিযোগ তুলে চরফ্যাসন থানায় মামলা দায়ের করেন।  
এদিকে শিশু ফয়েজের মা মারজান বেগম অভিযোগ করেন, প্রতিবেশী আকতার হোসেন ছেলের সাথে তার পুত্র ফয়েজের ফুটবল খেলা নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হলে ওই দিন স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য কবির হোসেন ও ওই শিশুর বাবা আকতার হোসেন তার ছেলে ফয়েজকে বেধড়ক মারধর করেন। শিশু পুত্র ফয়েজকে উদ্ধারে এগিয়ে গেলে তাকেও এলোপাতারী মারধর করেন। মারধরে ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ১৫ জুলাই সাবেক ইউপি সদস্য কবির হোসেন ও শিশুর পিতা আকতার হোসেনসহ ৫জনকে আসামী করে চরফ্যাসন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা  করেন। এই মামলাকে ধামাচাপা দিতে সাবেক ইউপি সদস্য করিব হোসেনের ইন্দনে আমার পরিবারকে ঘায়েল করতে আমার ১০ বছরের শিশু পুত্রের বিরুদ্ধ বলৎকারের অভিযোগ তুলে  মিথ্যা মামলা দায়ের করেন।
চরফ্যাসন থানার ওসি মো. মনির হোসেন মিয়া জানান, শিশু বলৎকারের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মুল আসামী ফয়েজকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। শিশু ফয়েজের মা আদালতে দায়েরকৃত মামলার বিষয়ে তার জানা নাই।


পরবর্তী খবর পড়ুন : চরফ্যাসনের চরকলমী ইউনিয়নের একই পরিবারে দুই কৃষককে কুপিয়ে জখম