চরফ্যাসনে পাওনা টাকা চাওয়ায় দিনমুজুরকে মারধর, বসত ঘরে হামলা
প্রতীক ছবি


চরফ্যাসন দুলারহাট থানার আহাম্মদপুর ইউনিয়নে তরমুজ ক্ষেতে কাজের পাওনা টাকা চাওয়ায় মিরাজ নামের এক দিনমজুরকে মারধর করে বসত ঘরে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ইউনিয়নের আহাম্মদপুর গ্রামে এঘটনা ঘটে। দিনমুজুরকে মারধরের ঘটনায় আহত মিরাজের মা আংকুর বেগম বাদী হয়ে ইউসুব, এমরান, ফোরকান ও আরিফসহ ৪ জনকে আসামী করে দুলারহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। বিকালে দুলারহাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, দিনমুজুর মিরাজ প্রতিবেশী ইউসুফের তরমুজের খামারে মাসিক ১২ হাজার টাকা বেতনে কাজ করার চুক্তিবদ্ধ হন। ক্ষেতের তরমুজ তোলার পর তার প্রাপ্ত পাওনা টাকা চাইলে তাকে ১২ হাজার টাকার পরিবর্তে সাড়ে চার মাস কাজ করার পরে ইউসুব মাসিক ৯ হাজার টাকা দিতে রাজি হন। ওই মাসিক বেতনের বাড়তি টাকা নিয়ে দিনমুজুর মিরাজ ও তার পরিবারের সাথে তর্কবিতর্ক হয় ইউসুবের। ওই তর্কের জের ধরে বৃহস্পতিবার দুপুরে দিনমুজুর পরিবার তাদের পাওনা টাকা চাইতে গেলে প্রতিবেশী ইউসুব দিনমুজুর পরিবারকে টাকা দিতে পারবেনা বলে সাফ জানিয়ে দেন। এনিয়ে দিনমুজুর মিরাজের মায়ের সাথে তাদের তর্কবাধে। পাওনা টাকা নিয়ে তর্কের জের ধরে ইউসুব ও তার পরিবারের সদস্যরা দলবল নিয়ে আংকুর বেগমের ওপর চড়াও হয়। মিরাজ ও তার নানা আবু মাঝি প্রতিবাদ করলে ইউসুবের নেতৃত্বে আর্তকিত হামলা চালিয়ে মারধর করে গুরুতর জখম করে। প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় দুলারহাট উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্র প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।
অভিযুক্ত ইউসুব জানান, সব টাকা পরিশোধ করার পরেও মিরাজ ও তার পরিবার আরো অতিরিক্ত টাকাদাবী করে আমাদের ওপর চড়াও হয়ে গালমন্দ করেছেন। তাদের ওপর হামলার বিষয়টি সঠিক নয়।
দুলারহাট থানার সহকারী উপ পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম জানান, ভূক্তভোগি পরিবারের অভিযোগ পেয়ে বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। অভিযোগটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


পরবর্তী খবর পড়ুন : চরফ্যাসনে যৌতুকের দাবীতে গৃহবধুর দু’হাত ভেঙে দিলেন স্বামী ও পরিবারের সদস্যরা