কর্মবিরতি


সারা বাংলাদেশের ন্যায় কেন্দ্রীয় কর্মসুচির অংশ হিসেবে স্বাস্থ্য সহকারীদের বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে চরফ্যাসন উপজেলায় কর্মরত স্বাস্থ্যসহকারীরা অনিদিষ্ট কালের জন্য কর্মবিরতি ঘোষনা করেছেন।বৃহস্পতিবার ভ্যাকসিন হিরো সম্মান, স্বাস্থ্যসহকারীর অবদান এ শ্লোগনাকে সামনে নিয়ে বাংলাদেশ হেল্থ এ্যাসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশন চরফ্যাসন উপজেলা শাখার আয়োজনে এই কর্মবিরতি ঘোষণা করা হয়।
জানাযায়,চরফ্যাসন উপজেলার ২১ টি ইউনিয়নের ৬৩টি টিকা কেন্দ্রে৭০জন স্বাস্থ্যসহকারী রয়েছে। ১৯৯৮ সালে প্রধান মন্ত্রীর ঘোষণা ,২০১৮ সালে স্বাস্থ্য মন্ত্রীর ঘোষণা এবং ২০২০ সালে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর লিখিত প্রতিশ্রæতিতে স্বাস্থ্য পরিদর্শকদের ১১ তম, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শকদের -১২ তম,স্বাস্থ্যসহকারীদের ১৩ তম গ্রেড প্রদানসহ নিয়োগ বিধি সংশোধণ করে করে স্বাস্থ্য কর্মিদের বেতন বৈষম্য নিরসন করা হবে। কিন্তু আজও আলোর মুখে দেখেনি স্বাস্থ্যসহকারীরা । নিয়োগ বিধি সংশোধণ করে বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে সারা বাংলাদেশের ন্যায় চরফ্যাসন উপজেলা সকল স্বাস্থ্য সহকারীরা অনিদিষ্ট কালের জন্য কর্মবিরতি ঘোষণা করেন।
কর্মবিরতিতে বাংলাদেশ হেল্থ এ্যাসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশন ভোলা জেলা শাখার সভাপতি শাহনাজ বেগম, ভোলা জেলা দাবী আদায়ের কমিটির যুগ্ম আহবায়ক মো. সিরাজুল ইসলাম,  চরফ্যাসন উপজেলা শাখার সভাপতি শাহ মনিরুজ্জামান,সহসভাপতি সাবের আহম্মেদ, সাধারন সম্পাদক মো. হারুন অর রশিদ, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক  মো. নুরনবী, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া,সহ সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির, মিডিয়া ও যোগাযোগ সম্পাদক নুর সোলেমানসক চরফ্যাসন উপজেলার সকল স্বাস্থ্যসহকারীরা উপস্থিত ছিলেন।  


পরবর্তী খবর পড়ুন : চরফ্যাসনে ধর্ষণচেষ্টা মামলা তুলে নিতে হুমকী, পালিয়ে বেড়াচ্ছে বাদিনী

আপনার মতামত লিখুন :