দেশি মেটেধনেশ-Indian Grey Hornbill
Indian Grey Hornbill

দেশি মেটেধনেশ-Indian Grey Hornbill

দেশি মেটেধনেশ হল একটা সাধারণ ধনেশ যাদেরকে ভারতীয় উপমহাদেশে দেখতে পাওয়া যায়। এরা পুটিয়াল ধনেশ নামেও পরিচিত।

ইংরেজি নাম: Indian Grey Hornbill

বৈজ্ঞানিক নাম: Ocyceros birostris

বর্ণনাঃ

দেশি মেটেধনেশ হল একটি মাঝারি রঙের ধনেশ যাদের আকার হয় ৬১ সেমি (২৪ ইঞ্চি)। এদের অপরের অংশ হয় হাল্কা বাদামি ধূসর রঙের এবং একটি ফ্যাকাশে ভুরু এর সামান্য চিহ্ন আছে। কানের পালকাবরণ গাঢ় হয়। এদের পাখনাগুলো হয় গাঢ় বাদামি রঙের এবং এদের শেষের দিকের রঙ হয় সাদা। এদের ল্যাজের মাথার দিকটা হয় সাদা রঙের এবং একটি ব্যান্ড থাকে অর্ধপরিহিত। এদের চোখের মণি হয় লাল রঙের এবং এদের ধূসর রঙের চোখের পাতা আছে। এদের শিরস্ত্রাণ হয় ছোটো এবং সূচালো।

পুরুষ ধনেশদের শিরস্ত্রাণ হয় অপেক্ষাকৃত বড়ো এবং এটা কালো রঙের ঠোটের ওপরে থাকে। এদের ঠোটের সামনের দিকটা এবং চোয়াল হয় হলুদ রঙের। চোখের চারপাশের চামড়া হয় কালো রঙের পুরুষদের ক্ষেত্রে এবং এটা মহিলাদের ক্ষেত্রে হয় হাল্কা লাল রঙের। মহিলাদের ঠোট আরোও হরিদ্রাভ হয়। তরুণদের শিরস্ত্রাণ থাকে না এবং এদের চোখের চারপাশের চামড়া হয় হাল্কা কমলা রঙের।

স্বভাবঃ

এরা বেশিরভাগ বৃক্ষবাসী হয় এবং সাধারণত জোড়ায়-জোড়ায় দেখতে পাওয়া যায়। এই ধনেশদের মাঝে মাঝে ভারতের বিভিন্ন শহরাঞ্চলে দেখতে পাওয়া যায় যারা বড় বড় গাছে বাসা বেঁধে থাকতে পছন্দ করে। এদের ডাক হল অনেকটা ভুবন চিলের ডাকের মতোন অভিযোগ করার ডাক। তারা সম্পুর্ণই গাছে বসবাস করে তবে কিছু কিছু সময় তারা নিচে পড়ে থাকা ফল কুড়তে মাটিতে নামে। এছড়াও তারা কাদার দলা খুঁজতে মাটিতে নামে তাদের বাসাকে বন্ধ করবার জন্য। তারা মাঝে মাঝে ঠোট নিয়ে যুদ্ধ করে থাকে নিজেদের মধ্যে এছাড়াও বায়বীয় প্রতিযোগিতা করে থাকে।

প্রজননঃ

প্রজনন মৌসুম  এপ্রিল থেকে জুন। এরা প্রধানত লম্বা গাছের গর্তে বসবাস করতে পছন্দ করে।কক্ মহিলারা অই বাসায় ঢুকে পড়ে বাসাটাকে বন্ধ করে দেয় এবং একটা ছোট উল্লম্ব ছিদ্র রাখে যাতে পুরুষেরা তাদের খাবার খাওয়াতে পারে ওই ছিদ্র দিয়ে। বাসার ভিতরে মহিলারা ডিম পাড়ে এবং ডিমে তা দেয় তাকে ফোটানোর জন্য। তারপরে ১-৫ টা ছোটো ছোটো সাদা রঙের ডিম পারে। মাপ ৪.১×৩.০ সেমি। ডিম ফুটতে সময় লাগে ৩৫-৩৭ দিন।

খাদ্য তালিকাঃ

গিরগিটি, টিকটিকি, ইঁদুর, গুবরে পোকা, ফল ও ফুলের পাপড়ি।

বিস্তৃতিঃ

দেশি মেটেধনেশ বাংলাদেশের প্রাক্তন আবাসিক পাখি; রাজশাহী বিভাগের পশ্চিমাঞ্চলের গ্রামীণ কুঞ্জ বনে দেখা যেত, এখন নেই। বাংলাদেশ ছাড়াও এদের বৈশ্বিক বিস্তৃতি ভারত, নেপাল ও পাকিস্তানে। 

অবস্থাঃ

দেশি মেটেধনেশ বিশ্বে বিপদমুক্ত এবং বাংলাদেশে মহাবিপন্ন বলে বিবেচিত। বিগত তিন প্রজন্ম ধরে এদের সংখ্যা কমেছে, তবে দুনিয়ায় এখন ১০,০০০-এর অধিক পূর্ণবয়স্ক পাখি আছে, তাই এখনও আশঙ্কাজনক পর্যায়ে এই প্রজাতি পৌঁছেনি। সেকারণে আই. ইউ. সি. এন. এই প্রজাতিটিকে ন্যূনতম বিপদগ্রস্ত (Least Concern LC) বলে ঘোষণা করেছে। বাংলাদেশের ১৯৭৪ ও ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনে এই দেশি মেটেধনেশকে সংরক্ষিত ঘোষণা করা হয় নি।