চিতিঠুঁটি গগণবেড়
Spot-billed pelican

Spot-billed pelican

চিতিঠুঁটি গগণবেড় পেলিকান পরিবারের সদস্য। এটি বড় অভ্যন্তরীণ এবং উপকূলীয় জলের পাখি, বিশেষ করে বড় হ্রদ।

ইংরেজি নাম: Spot billed Pelican 

বৈজ্ঞানিক নাম: Pelecanus philippensis

বর্ণনাঃ

চিতিঠুঁটি গগনবেড় ঝুঁটিদার ঘাড় ও তিলাভরা ঠোঁটের বড় জলচর পাখি। এই প্রজাতির একটি পরিণত পাখির দৈর্ঘ্য ১৫২ সেন্টিমিটার, ওজন ৫ কেজি, ডানা ৫৫ সেন্টিমিটার, ঠোঁট ৩৩ সেন্টিমিটার, পা ৮ দশমিক ৭ সেন্টিমিটার ও লেজ ১৮ দশমিক ২ সেন্টিমিটার। প্রজনন ঋতুতে প্রাপ্তবয়স্ক এই পাখির দেহ ধূসর, মাথা, ঘাড়, পিঠ ও ডানার পালকের আগা কালো। কোমর দারুচিনি-পাটকিলে। ঘাড়ের পেছনে খাটো ঝুঁটি রয়েছে। দেহতল কিছুটা পাটকিলে-সাদা। চোখের সামনের চামড়া কিছুটা বেগুনি। চক্ষুগোলকের চামড়া কিছুটা কমলা-হলুদ ও পাটকিলে।

বিচরণঃ

এরা বড় জলাশয়, মোহনা ও উপকূলে বিচরণ করে। শিকারের সময় সংঘবদ্ধ হয়ে অগভীর পানিতে মাছের ঝাঁক ঘিরে ফেলে। মাঝে মাঝে ঘোঁত ঘোঁত করে কিংবা ব্যাঙের মতো কর্কশ গলায় ডাকে। এদের স্বভাব প্রজাতির অন্যদের মতোই। 

খাদ্য তালিকাঃ

মাছ ও চিংড়িজাতীয় প্রাণী।

প্রজননঃ

সেপ্টেম্বর-এপ্রিল মাসে প্রজননকালে পানির ধারে দল বেঁধে গাছে বাসা বাঁধে। বাসা বানানো,ডিমে তা দেওয়া ও ছানা লালন-পালন স্ত্রী- পুরুষ মিলেমিশে করে। বাসায় ৩-৪টি ডিম পাড়ে। ৩০ দিনে ডিম ফুটে বাচ্চা ওঠে।

বিস্তৃতিঃ

ভারত, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, কম্বোডিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় এর বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে। উনিশ শতকে ঢাকা বিভাগে পাওয়া যেত। এখন নেই।

অবস্থাঃ

চিতিঠুঁটি গগনবেড় বিশ্বে সংকটাপন্ন বলে বিবেচিত। বাংলাদেশে বন্য প্রাণী আইনে সংরক্ষিত। ২০০৭ আইইউসিএন রেড লিস্টে প্রজাতির অবস্থা দুর্বল থেকে প্রায় হুমকির মুখে পরিবর্তিত হয়েছে।


পরবর্তী খবর পড়ুন : বড় ধলা গগণবেড়