ইয়াসির আরাফাত এর জীবনী - Biography of Yasser Arafat
Yasser Arafat Former President of the State of Palestine

ইয়াসির আরাফাত এর জীবনী - Biography of Yasser Arafat

মুহাম্মদ আবদেল রহমান আব্দেল রউফ আরাফাত আল-কুদওয়া আল-হুসেইনী (/ˈærəfæt/ ARR-ə-fat, /əlsoʊsˈɑːrəfɑːt/ AR-ə-FAHT; আরবি: محمد ياسر عبد الرحمن عبد الرؤوف عرفات القدوة الحسيني‎), প্রচলিত নাম ইয়াসির আরাফাত, ছিলেন একজন ফিলিস্তিনী নেতা।

জন্ম ও শিক্ষা

আগস্ট ২৪, ১৯২৯ আরাফাত মিশরের কায়রোতে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৪৯ সালে আরাফাত কায়রোর কিং ফু'আদ বিশ্ববিদ্যালয়ে (পরে কায়রো বিশ্ববিদ্যালয়) সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা শুরু করেন।

ব্যক্তিগত জীবন

১৯৯০ সালে, আরাফাত ৬১ বছর বয়সে ফিলিস্তিনি খ্রিস্টান সুহা তাভিলকে বিয়ে করেন এবং সুহার বয়স তখন ২৭ বছর। তার মা তাকে ফ্রান্সে তার সাথে পরিচয় করিয়ে দেন, এরপর তিনি তিউনিসে তার সেক্রেটারি হিসেবে কাজ করেন। তাদের বিয়ের আগে, আরাফাত পঞ্চাশজন ফিলিস্তিনি যুদ্ধ এতিমকে দত্তক নিয়েছিলেন। তাদের বিয়ের সময়, সুহা অনেক সময় আরাফাতকে ছেড়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল, কিন্তু তিনি তা নিষেধ করেছিলেন। সুহা বলেছিলেন যে তিনি বিবাহের জন্য অনুশোচনা করেছেন, এবং আবার পছন্দ দিলে এটি পুনরাবৃত্তি হবে না। ১৯৯৫ সালের মাঝামাঝি সময়ে, আরাফাতের স্ত্রী সুহা প্যারিসের একটি হাসপাতালে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন, যার নাম আরাফাতের মায়ের নামে রাখা হয় জাহওয়া।

রাজনৈতিক জীবন

প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশন বা পিএলওর চেয়ারম্যান হিসাবে আরাফাত ইসরায়েলী দখলদারির বিরুদ্ধে সারাজীবন সংগ্রাম করেন। তিনি প্যালেস্টিনিয়ান অথরিটির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন। জীবনের একটা দীর্ঘ সময় আরাফাত ধর্মনিরপেক্ষ ফাতাহ দলের নেতৃত্ব দেন। ১৯৫৮-১৯৬০ সালের মধ্যে তিনি এই দলটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। প্রাথমিকভাবে ইসরায়েলের অস্তিত্বের সম্পূর্ণ বিরোধী থাকলেও পরে আরাফাত ১৯৮৮ সালে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্ত ২৪২ মেনে নিয়ে নিজের অবস্থান পরিবর্তন করেন।

১৯৬০ ও ৭০-এর দশকে আরাফাতের ফাতাহ দল জর্ডানের সাথে মতপার্থক্যজনিত কারণে গৃহযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে, যার ফলে আরাফাত বিতর্কিত হয়ে পড়েন। জর্ডান থেকে বিতাড়িত হয়ে তিনি লেবাননে অবস্থান নেন, যেখানে তিনি ও তার ফাতাহ দল ইসরাইলের ১৯৭৮ ও ১৯৮২ সালের আগ্রাসন ও আক্রমণের শিকার হন। দল-মত-নির্বিশেষে ফিলিস্তিনী জনগোষ্ঠীর অধিকাংশ মানুষ আরাফাতকে বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং ফিলিস্তিনীদের স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রতীক হিসাবে সম্মান করে থাকে। তবে অনেক ইসরাইলী তাকে সন্ত্রাসবাদী হিসাবে অভিহিত করে থাকে।

জীবনের শেষভাগে আরাফাত ইসরাইলী সরকারের সাথে কয়েক দফায় শান্তি আলোচনা শুরু করেন। ১৯৯১ সালের মাদ্রিদ সম্মেলন, ১৯৯৩ সালের অসলো চুক্তি এবং ২০০০ সালের ক্যাম্প ডেভিড সম্মেলন এর মাধ্যমে আরাফাত ইসরাইলীদের সাথে কয়েক দশকের সংঘাতের অবসান ঘটানোর প্রয়াস নেন। ইসরাইলীদের সাথে এই সমঝোতা স্থাপনের জন্য আরাফাতের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তার নতজানু নীতির তীব্র নিন্দা করে। ১৯৯৪ সালে আরাফাত অসলো শান্তি চুক্তির জন্য আইজাক রবিন ও শিমন পেরেজ এর সাথে একত্রে নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভ করেন। কিন্তু একই সময়ে হামাস ও অন্যান্য সংগঠনের উত্থান ঘটে, যারা ফাতাহ ও আরাফাতের ক্ষমতার ভিত্তি দুর্বল করে দিয়ে ফিলিস্তিনের বিভিন্ন এলাকায় রাজনৈতিক ক্ষমতা দখল করে নেয়।

পুরস্কার ও সম্মাননা

১৯৯৪ সালে ঐতিহাসিক অসলো চুক্তি স্বাক্ষরের পর আইজাক রবিন, শিমন পেরেজ ও ফিলিস্তিনের অবিসংবাদিত নেতা ইয়াসির আরাফাত যৌথভাবে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

মৃত্যু

২০০২ হতে ২০০৪ সালের শেষভাগ পর্যন্ত আরাফাত ইসরাইলী সেনাবাহিনীর হাতে তার রামাল্লার দপ্তরে কার্যত গৃহবন্দী হয়ে থাকেন। ২০০৪ এর শেষদিকে আরাফাত অসুস্থ হয়ে পড়েন, এবং কোমায় চলে যান। আরাফাতের অসুস্থতা ও মৃত্যুর কারণ সুনির্দিষ্টভাবে প্রকাশ পায়নি; কিন্তু চিকিৎসকদের মতে ,তিনি ইডিওপ্যাথিক থ্রম্বোসাইটোপেনিক পারপুরা এবং সিরোসিসে ভুগছিলেন। তিনি ২০০৪ সালের নভেম্বর ১১ তারিখে প্যারিসে চিকিৎসারত অবস্থায় ৭৫ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।

মাওলানা মাজহারুল ইসলাম মাজহারী এর জীবনী - Biography of Maulana Mazharul Islam Mazhari
আহমেদ ছফা
হুমায়ূন আহমেদ এর জীবনী-Biography Of Humayun Ahmed
মাইকেল মধুসূদন দত্ত
সাদাত হোসাইন এর জীবনী-Biography Of Sadat Hossain
কামাল উদ্দিন জাফরী এর জীবনী-Biography of Kamal Uddin Jafri
অনন্ত জলিল-Biography Of Ananta Jalil
তাওহিদ আফ্রিদি এর বয়স, শিক্ষা ও জীবনী
কবি মুহিব খান এর বয়স, শিক্ষা ও জীবনী - - Poet Muhib Khan's Age, Education and Biography -